১২:৪৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিক্ষোভে গুলি চালানো কি ছাত্রলীগ-যুবলীগ নেতাদের ‘অধিকার’

Reporter Name
  • No Update : ১০:৫৪:৩১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ নভেম্বর ২০২৩
  • / 1135

যেসব দেশের সঙ্গে গার্মেন্ট পণ্য রপ্তানিতে আমাদের প্রতিযোগিতা হয়, কখনো তাদের পেছনে ফেলে আমরা ১ নম্বরেও চলে যাই; সেসব দেশের তুলনায় এ দেশের পোশাকশ্রমিকদের বেতন-মজুরির তফাৎ দেখলে অবাকই করে।

দেশের পোশাকশিল্প বিকাশের অন্যতম কারণ হিসেবে বলা হয়, এখানকার সস্তা শ্রম। কিন্তু সেই সস্তা শ্রম যে এতটাই সস্তা, তা বোধ হয় শিক্ষিত নাগরিক সমাজ জানেই না। সস্তা শ্রমের মতো এসব শ্রমিকের জীবন যে আরও বেশি সস্তা, সেটিও আমরা দেখি মজুরি বাড়ানোর দাবিতে শ্রমিকদের বিক্ষোভে গুলি চালানোর ঘটনায়।

কিছুদিন ধরে ঢাকাসহ এর আশপাশে শ্রমিক অঞ্চলগুলোতে গার্মেন্ট কারখানার শ্রমিকেরা বিক্ষোভ-আন্দোলন করছেন। পোশাক খাতের সর্বনিম্ন মজুরি আট হাজার টাকা। সেই টাকায় একজন শ্রমিকের পরিবার কী করে চলে?

আরও পড়ুন
পোশাক খাতের মজুরি বাংলাদেশে কেন সবচেয়ে কম
দফায় দফায় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে কয়েক মাস আগে পর্যন্ত সম্বল ছিল ডিম আর আলু। সেই ডিম আর আলু কিনতেই এখন নাভিশ্বাস। কয়েক সদস্যের একটি পরিবার চালাতে কয়েক ঘণ্টা ওভারটাইম করতে বাধ্য হন তাঁরা। এতে আরও কিছু টাকা মিললেও তা দিয়ে এ দুর্দিনে কীভাবে চলা সম্ভব?

বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের ২৩-২৫ হাজার টাকা মজুরি দাবি ও নিম্নতম মজুরি বোর্ড গঠনে আশাবাদী হয়েছিলেন পোশাকশ্রমিকেরা। কিন্তু মজুরি বোর্ডে মালিকপক্ষের ১০ হাজার ৪০০ টাকা মজুরি প্রস্তাবে বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন তাঁরা। কারণ, ওভারটাইম করে মোট যে টাকা মাসে পান তাঁরা, সেই তুলনায়ও কম প্রস্তাবিত এ মজুরি।

স্বাভাবিকভাবেই প্রস্তাবিত এ মজুরিকে মানতে পারেন না শ্রমিকেরা। দাবি আদায়ে কঠোর আন্দোলনে নামেন তাঁরা। সেই আন্দোলন ঠেকাতে মাঠে নামে পুলিশ ও মালিকপক্ষের লোকেরাও। ফলে সেখানে সংঘর্ষ-ভাঙচুর অনিবার্য। সোমবার পুলিশের সঙ্গে পাল্টাপাল্টি ধাওয়ায় গাজীপুরে আহত এক শ্রমিক হাসপাতালে মারা গেছেন। একই দিন কোনাবাড়ী এলাকায় কারখানায় দেওয়া আগুনে মারা গেছেন আরেক শ্রমিক।

পরদিন মঙ্গলবারও এসব এলাকায় দেশে শ্রমিক বিক্ষোভ হয়। সংঘর্ষও হয়। মিরপুরের পল্লবী এলাকায় বিক্ষোভরত পোশাকশ্রমিকদের বিক্ষোভ ঠেকাতে স্থানীয় প্রভাবশালী একাধিক ব্যক্তির লোকজন আগ্নেয়াস্ত্র ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে মাঠে নামেন। সেখানে ছিলেন সরকারদলীয় নেতাও। তাঁদের মধ্যে আওলাদ হোসেন ওরফে লাক্কু নামের যুবলীগের এক নেতার ছবি মঙ্গলবার প্রথম আলো অনলাইনে প্রকাশিত হয়েছে। তাঁর আশপাশে কয়েকজন লাঠি হাতে আর তিনি লম্বা আগ্নেয়াস্ত্র হাতে। এতটাই তিনি বেপরোয়া যে নিজের পরিচয় লুকানোর জন্য কোনো মাস্ক বা মুখোশ, এমনকি মাথায় হেলমেটও পরেননি।

আওলাদ মিরপুর অঞ্চলের বিভিন্ন পোশাক কারখানার ঝুট ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করেন। তিনি যুবলীগের ঢাকা মহানগর উত্তরের সাংস্কৃতিক সম্পাদক হিসেবে আছেন। তিনি সন্ত্রাসী ও ক্যাডারভিত্তিক রাজনীতি করেন, এমনটাই বক্তব্য একই কমিটি সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেনের।

একাধিক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, আওলাদ হোসেন আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে গুলিও ছুড়েছেন। আগ্নেয়াস্ত্র হাতে আওলাদের এ ছবির সবগুলো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভেসে বেড়াচ্ছে। কিন্তু পুলিশ তাঁকে নিয়ে খোঁজ করারই সময় পায়নি। বুধবার প্রথম আলোর আরেকটি প্রতিবেদনে পল্লবী থানার পুলিশ এমন বক্তব্য দিয়েছে।

Tag : Bangladesh Diplomat, bd diplomat

Please Share This Post in Your Social Media

Write Your Comment

About Author Information

Bangladesh Diplomat | বাংলাদেশ ডিপ্লোম্যাট

Bangladesh Diplomat | বাংলাদেশ ডিপ্লোম্যাট | A Popular News Portal Of Bangladesh.

বিক্ষোভে গুলি চালানো কি ছাত্রলীগ-যুবলীগ নেতাদের ‘অধিকার’

No Update : ১০:৫৪:৩১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ নভেম্বর ২০২৩

যেসব দেশের সঙ্গে গার্মেন্ট পণ্য রপ্তানিতে আমাদের প্রতিযোগিতা হয়, কখনো তাদের পেছনে ফেলে আমরা ১ নম্বরেও চলে যাই; সেসব দেশের তুলনায় এ দেশের পোশাকশ্রমিকদের বেতন-মজুরির তফাৎ দেখলে অবাকই করে।

দেশের পোশাকশিল্প বিকাশের অন্যতম কারণ হিসেবে বলা হয়, এখানকার সস্তা শ্রম। কিন্তু সেই সস্তা শ্রম যে এতটাই সস্তা, তা বোধ হয় শিক্ষিত নাগরিক সমাজ জানেই না। সস্তা শ্রমের মতো এসব শ্রমিকের জীবন যে আরও বেশি সস্তা, সেটিও আমরা দেখি মজুরি বাড়ানোর দাবিতে শ্রমিকদের বিক্ষোভে গুলি চালানোর ঘটনায়।

কিছুদিন ধরে ঢাকাসহ এর আশপাশে শ্রমিক অঞ্চলগুলোতে গার্মেন্ট কারখানার শ্রমিকেরা বিক্ষোভ-আন্দোলন করছেন। পোশাক খাতের সর্বনিম্ন মজুরি আট হাজার টাকা। সেই টাকায় একজন শ্রমিকের পরিবার কী করে চলে?

আরও পড়ুন
পোশাক খাতের মজুরি বাংলাদেশে কেন সবচেয়ে কম
দফায় দফায় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে কয়েক মাস আগে পর্যন্ত সম্বল ছিল ডিম আর আলু। সেই ডিম আর আলু কিনতেই এখন নাভিশ্বাস। কয়েক সদস্যের একটি পরিবার চালাতে কয়েক ঘণ্টা ওভারটাইম করতে বাধ্য হন তাঁরা। এতে আরও কিছু টাকা মিললেও তা দিয়ে এ দুর্দিনে কীভাবে চলা সম্ভব?

বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের ২৩-২৫ হাজার টাকা মজুরি দাবি ও নিম্নতম মজুরি বোর্ড গঠনে আশাবাদী হয়েছিলেন পোশাকশ্রমিকেরা। কিন্তু মজুরি বোর্ডে মালিকপক্ষের ১০ হাজার ৪০০ টাকা মজুরি প্রস্তাবে বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন তাঁরা। কারণ, ওভারটাইম করে মোট যে টাকা মাসে পান তাঁরা, সেই তুলনায়ও কম প্রস্তাবিত এ মজুরি।

স্বাভাবিকভাবেই প্রস্তাবিত এ মজুরিকে মানতে পারেন না শ্রমিকেরা। দাবি আদায়ে কঠোর আন্দোলনে নামেন তাঁরা। সেই আন্দোলন ঠেকাতে মাঠে নামে পুলিশ ও মালিকপক্ষের লোকেরাও। ফলে সেখানে সংঘর্ষ-ভাঙচুর অনিবার্য। সোমবার পুলিশের সঙ্গে পাল্টাপাল্টি ধাওয়ায় গাজীপুরে আহত এক শ্রমিক হাসপাতালে মারা গেছেন। একই দিন কোনাবাড়ী এলাকায় কারখানায় দেওয়া আগুনে মারা গেছেন আরেক শ্রমিক।

পরদিন মঙ্গলবারও এসব এলাকায় দেশে শ্রমিক বিক্ষোভ হয়। সংঘর্ষও হয়। মিরপুরের পল্লবী এলাকায় বিক্ষোভরত পোশাকশ্রমিকদের বিক্ষোভ ঠেকাতে স্থানীয় প্রভাবশালী একাধিক ব্যক্তির লোকজন আগ্নেয়াস্ত্র ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে মাঠে নামেন। সেখানে ছিলেন সরকারদলীয় নেতাও। তাঁদের মধ্যে আওলাদ হোসেন ওরফে লাক্কু নামের যুবলীগের এক নেতার ছবি মঙ্গলবার প্রথম আলো অনলাইনে প্রকাশিত হয়েছে। তাঁর আশপাশে কয়েকজন লাঠি হাতে আর তিনি লম্বা আগ্নেয়াস্ত্র হাতে। এতটাই তিনি বেপরোয়া যে নিজের পরিচয় লুকানোর জন্য কোনো মাস্ক বা মুখোশ, এমনকি মাথায় হেলমেটও পরেননি।

আওলাদ মিরপুর অঞ্চলের বিভিন্ন পোশাক কারখানার ঝুট ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করেন। তিনি যুবলীগের ঢাকা মহানগর উত্তরের সাংস্কৃতিক সম্পাদক হিসেবে আছেন। তিনি সন্ত্রাসী ও ক্যাডারভিত্তিক রাজনীতি করেন, এমনটাই বক্তব্য একই কমিটি সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেনের।

একাধিক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, আওলাদ হোসেন আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে গুলিও ছুড়েছেন। আগ্নেয়াস্ত্র হাতে আওলাদের এ ছবির সবগুলো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভেসে বেড়াচ্ছে। কিন্তু পুলিশ তাঁকে নিয়ে খোঁজ করারই সময় পায়নি। বুধবার প্রথম আলোর আরেকটি প্রতিবেদনে পল্লবী থানার পুলিশ এমন বক্তব্য দিয়েছে।